তিতাস

তিতাস

বিশেষ্য

  1. – বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাংশে প্রবাহমান নদীবিশেষ;
  2. – তিতাস নদীর উপকূলে প্রাপ্ত গ্যাসক্ষেত্রের নাম৷

পরিচিত

  • – তিতাস বাংলাদেশ-ভারতের আন্তঃসীমানা সংশ্লিষ্ট নদী হিসেবে পরিচিত। নদীটির উৎপত্তি হয়েছে ভারতের অঙ্গরাজ্য ত্রিপুরায়। সেখানে বাংলা ভাষায় হাওড়া নদী এবং স্থানীয় কোকবোরোক ভাষায় সাঈদ্রা নদী নামে তিতাস নদীর নামকরণ করা হয়েছে। কিন্তু বাংলাদেশে ঐ নদীটি তিতাস নদী হিসেবে পরিচিতি পায়। মেঘনার কন্যা নামে খ্যাত এই নদীর দৈর্ঘ্য ৯৮ কিলোমিটার৷

সাঈদ্রা নদী

সাঈদ্রা নদী

বিশেষ্য

  1. ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের নদীবিশেষ, বাংলাদেশ অংশে এই নদীর নাম তিতাস, ত্রিপুরায় এটি হাওড়া নদী এবং স্থানীয় কোকবোরোক ভাষায় সাঈদ্রা নদী নামে পরিচিত৷

পরিচিতি

  • ভারতীয় অঙ্গরাজ্য ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার কাছাকাছি প্রবাহিত হয়ে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার আখাউড়া উপজেলা দিয়ে নদীটি প্রবেশ করে শাহবাজপুর টাউন অঞ্চলের সীমানা ঘেঁষে এটি আরো দক্ষিণদিকে অগ্রসর হয়ে ভৈরব-আশুগঞ্জের সীমানা ঘেঁষে বহমান অন্যতম বৃহৎ নদী মেঘনার সাথে একীভূত হয়ে যায় তিতাস নদীটি। তিতাসের গড় দৈর্ঘ্য প্রায় ৯৮ কিলোমিটার।

হাওড়া নদী

হাওড়া নদী

বিশেষ্য

  1. ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের নদীবিশেষ, বাংলাদেশ অংশে এই নদীর নাম তিতাস, স্থানীয় কোকবোরোক ভাষায় সাঈদ্রা নদী৷

পরিচিতি

  • ভারতীয় অঙ্গরাজ্য ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলার কাছাকাছি প্রবাহিত হয়ে বাংলাদেশের ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলার আখাউড়া উপজেলা দিয়ে নদীটি প্রবেশ করে শাহবাজপুর টাউন অঞ্চলের সীমানা ঘেঁষে এটি আরো দক্ষিণদিকে অগ্রসর হয়ে ভৈরব-আশুগঞ্জের সীমানা ঘেঁষে বহমান অন্যতম বৃহৎ নদী মেঘনার সাথে একীভূত হয়ে যায় তিতাস নদীটি। তিতাসের গড় দৈর্ঘ্য প্রায় ৯৮ কিলোমিটার।