জাতিবাচক

জাতিবাচক

বিশেষণ

  1. জাতিনির্দেশক বা শ্রেণিনির্দেশক (জাতিবাচক উপাধি);
  2. (ব্যাকরণ) শ্রেণিসূচক (জাতিবাচক বিশেষ্য)।

ব্যাকরণ

  • যে বিশেষ্য পদ বা শব্দশ্রেণি দ্বারা জাতি বা শ্রেণি চেনা যায় তাকে জাতিবাচক বিশেষ্য বলে; Common Noun.

ট বর্গ

ট বর্গ

বিশেষ্য

  • (ব্যাকরণ) ট ঠ ড ঢ ণ এই পাঁচটি বর্ণ।

টা

টা

ব্যাকরণ

  1. নির্দেশক আশ্রিত পদ বা প্রত্যয়কল্প অব্যয়বিশেষ (একটা, খানিকটা);
  2. ব্যক্তি বিষয় বা বস্তু নির্দেশে (মেয়েটা, আমটা, কাজটা);
  3. অবজ্ঞা বা অনাদরে (‘রাজাটা খেপেছে রে’: রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর; হচ্ছেটা কী?)।

টাক

টাক

বিশেষ্য

  1. কেশহীন মস্তক (টাকটা ঢাকো);
  2. মস্তকের কেশহীনতা, ইন্দ্রলুপ্ত (মাথায় টাক পড়েছে)।

বিশেষণ

  • টাকযুক্ত, টেকো (টাক মাথা)।

উৎস

  • দেশি।

টাক

অব্যয়

  • (অনুমানবাচক প্রত্যয়বিশেষ), প্রায়, তত্পরিমাণ (পোয়াটাক, মাইলটাক)।

উৎস

  • দেশি।

টাক

বিশেষ্য (আঞ্চলিক)

  • ঠোকর, গুঁতো (মাথায় টাক খাওয়া)।

উৎস

  • তুলনামূলক টক্কর।

ত বর্গ

ত বর্গ

বিশেষ্য

  • ত থ দ ধ ন-এই পাঁচটি বর্ণ।

উৎস

  • ১ + বর্গ।

তদ্ধিত

তদ্ধিত

বিশেষ্য

  • (ব্যাকরণ) শব্দের উত্তর বিহিত প্রত্যয়-যেমন দশরথ + ই = দাশরথি, দুরন্ত + পনা = দুরন্তপনা।

উৎস

  • সংস্কৃত তদ্ (সেই অর্থাৎ মূলশব্দে) + হিত (উপযুক্ত)।

তদ্ভব

তদ্ভব

বিশেষণ

  1. – তা থেকে উত্পন্ন;
  2. – (ব্যাকরণ) সংস্কৃত থেকে উত্পন্ন, কিন্তু প্রাকৃত ভাষায় এবং তা থেকে বাংলা ভাষায় ক্রমশ পরিবর্তিত রূপে প্রচলিত—যেমন বাংলা হাত < প্রাকৃত হত্থ < সংস্কৃত হস্ত।

উৎস

  • – সংস্কৃত তদ্ + √ ভূ + অ।

তনাদি

তনাদি

বিশেষ্য

  • (ব্যাকরণ) সংস্কৃত ধাতুর গণবিশেষ।

উৎস

  • সংস্কৃত তন্ + আদি।

তা

তা

বিশেষ্য

  1. – ডিম ফোটাবার জন্য ডিমের উপর বসে স্ত্রী পাখির দেওয়া তাপ (ডিমে তা দেওয়া);
  2. – (আলঙ্করিক) উসকানি, নীরবে বা গোপনে উত্সাহ দেওয়া (ওদের ঝগড়ায় তুমি কেন তা দিচ্ছ?)।

উৎস

  • – সংস্কৃত তাপ।

তা

বিশেষ্য

  • – পাক, মোচড়, চাড়া (গোঁফে তা দেওয়া)।

উৎস

  • – সংস্কৃত তার।

তা

বিশেষ্য

  • – কাগজের সম্পূর্ণ এক ফালি, গোটা একখানা (পাঁচ তা কাগজ)।

উৎস

  • – ফারসি তাহ্।

তা

অব্যয়

  1. – কথার মাত্রাবিশেষ (তা তুমি কখন এলে?);
  2. – কিন্তু, তবু (রোজই ভাবি যাব, তা সময় আর হয় না);
  3. – যাকগে, আচ্ছা (তা, এ ব্যাপারে তোমার কী মত?)।

উৎস

  • – দেশি।

তা

  • – ভাবার্থে প্রযুক্ত তদ্ধিত প্রত্যয়বিশেষ-এই প্রত্যয়যোগে বিশেষণ শব্দ বিশেষ্যে পরিণত হয় (নম্রতা, লঘুতা, বন্ধুতা)।

তালব্য

তালব্য

বিশেষণ

  1. – তালু থেকে উচ্চারিত (তালব্য ধ্বনি);
  2. – তালুসম্বন্ধীয়।

উৎস

  • – সংস্কৃত তালু + য।