অন্তে ‘তা/ র্তা’-যুক্ত শব্দের আচরণ

কয়েকটি ব্যাতিক্রান্ত ক্ষেত্র ব্যতীত অন্যান্য ক্ষেত্রে তৎসম তৃচ-প্রত্যয়ান্ত বা অন্তে ‘তা’ বা ‘র্তা’ যুক্ত কোনো শব্দের শেষে কোনো চিহ্ন/বর্ণ কিংবা শব্দ/শব্দাংশ যুক্ত হলে ওই ‘তা’ বা ‘র্তা’ পরিবর্তিত হয়ে যথাক্রমে ‘তৃ’ ও ‘র্তৃ’ রূপ ধারণ করে।
যেমন :

১. কর্তা: কর্তৃবৃন্দ, কর্তৃগণ, কর্তৃমণ্ডলী, কর্তৃপক্ষ, কর্তৃভবন, কর্তৃরূপ, কর্তৃবিয়োগ, কর্তৃহীন, কর্তৃতর্পণ, কর্তৃবৎ, কর্তৃস্থানীয়, কর্তৃভক্তি, কর্তৃহন্তা, কর্তৃকুল প্রভৃতি।

২. কর্মকর্তা: কর্মকর্তৃবৃন্দ, কর্মকর্তৃগণ, কর্মকর্তৃবৎ, কর্মকর্তৃভবন, কর্মকর্তৃমণ্ডলী, কর্মকর্তৃতুল্য, কর্মকর্তৃপরিষদ, কর্মকর্তৃসংঘ, কর্মকর্তৃহীন, কর্মকর্তৃবিয়োগ প্রভৃতি।

৩. দাতা: দাতৃবৃন্দ, দাতৃগণ, দাতৃমণ্ডলী, দাতৃভক্তি, দাতৃমৃত্যু, দাতৃবিয়োগ, দাতৃহীন, দাতৃবৎ, দাতৃবন্দনা, দাতৃসদন, দাতৃসংঘ, দাতৃকুল প্রভৃতি।

৪. মাতা: মাতৃস্নেহ, মাতৃভাষা, মাতৃদুগ্ধ, মাতৃভক্তি, মাতৃকুল, মাতৃত্ব, মাতৃস্তন্য, মাতৃকল্যাণ, মাতৃবৎ, মাতৃবন্দনা, মাতৃভূমি, মাতৃমৃত্যু, মাতৃবিয়োগ, মাতৃহীন প্রভৃতি।

৫. পিতা: পিতৃব্য, পিতৃপুরুষ, পিতৃগৃহ, পিতৃঋণ, পিতৃতর্পণ, পিতৃধর্ম, পিতৃসত্য, পিতৃষ্বসা, পিতৃহন্তা, পিতৃসম্পত্তি, পিতৃকল্প, , পিতৃপক্ষ, পিতৃলোক, পিতৃস্থানীয় প্রভৃতি।

৬. ভ্রাতা: ভ্রাতৃবৃন্দ, ভ্রাতৃগণ, ভ্রাতৃমণ্ডলী, ভ্রাতৃগণ, ভ্রাতৃসংঘ, ভ্রাতৃপ্রতিম, ভ্রাতৃপ্রেম, ভ্রাতৃবিদ্বেষ, ভ্রাতৃকলহ, ভ্রাতৃবধূ, ভ্রাতৃদ্বিতীয়া প্রভৃতি।

৭. নেতা: নেতৃবৃন্দ, নেতৃগণ, নেতৃত্ব, নেতৃবৎ, নেতৃবিয়োগ, নেতৃদেশ, নেতৃভক্তি, নেতৃহন্তা, নেতৃস্থানীয়, নেতৃপক্ষ, নেতৃকল্প, নেতৃতর্পণ, নেতৃকলহ প্রভৃতি।

৮. শ্রোতা: শ্রোতৃবৃন্দ, শ্রোতৃগণ, শ্রোতৃমণ্ডলী, শ্রোতৃকুল, শ্রোতৃবৎ, শ্রোতৃহীন, শ্রোতৃসংঘ, শ্রোতৃকলহ, শ্রোতৃকল্প, শ্রোতৃস্বরূপ প্রভৃতি।


সূত্র :

(১) ড. মোহাম্মদ আমীন, বাংলা বানান ও শব্দচয়ন, জাগৃতি প্রকাশনী, ঢাকা।

(২) ড. মোহাম্মদ আমীন, বাংলা বানান কোথায় কী লিখবেন, পুথিনিলয়, ঢাকা।

(৩) ড. মোহাম্মদ আমীন, অফিস আদালতে বাংলা লেখার নিয়ম, মাওলা ব্রাদার্স।

(৪) ড. মোহাম্মদ আমীন, দাপ্তরিক প্রমিত বাংলা বানান, পুথিনিলয়, ঢাকা।